নবজাতককে স্বাগত জানানোয় চাকরি গেলো এক বাবার!

সন্তান হবে আর বাবা কাছে থাকবে না তা কি হয়! কিন্তু সন্তান প্রসবের সময় স্ত্রীর পাশে থাকা এবং সদ্য ভূমিষ্ঠ সন্তানকে স্বাগত জানানোর জন্য চাকরিটাই খোয়াতে হয়েছে সেটা কি শুনেছেন? ঘটনা যুক্তরাজ্যের নিউ হ্যাম্পশায়ারের। সেখানে এক বাবা তার সন্তান প্রসবের সময় স্ত্রীর পাশে থাকা এবং নবজাতককে স্বাগত জানাতে অফিসে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়ার কারণে চাকরি খুইয়েছিলেন। কিন্তু তার চাকরি হারানোর খবর ছড়িয়ে পড়ার পর অসংখ্য মানুষ তার প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন।

অসংখ্য নতুন চাকরির প্রস্তাবও পেতে থাকেন তিনি। অনেকটা ঝড়ের মতো তার কাছে চাকরির প্রস্তাব আসতে থাকে।

ল্যামার অস্টিন কাজ করতেন নিরাপত্তা সেবা সরবরাহকারী কোম্পানি স্যালেরনো প্রটেক্টিভ সার্ভিসে। কলেজ ক্যাম্পাস এবং খুচরা দোকানগুলোতে নিরাপত্তা সেবা প্রদান করে এই কম্পানি। তিনি তার ৯০ দিনের শিক্ষাণবীশির মাঝপথে ছিলেন। এবং রাতে বা দিনে যে কোনো সময় ডাকা মাত্র অফিসে হাজির থাকার কথা ছিল তার।

কিন্তু মি. অস্টিন গত শুক্রবার থেকে রবিবার সকাল পর্যন্ত তার স্ত্রীর প্রসব বেদনা ওঠায় অফিসে যেতে পারেন নি। এতে তাকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়।

তাদের সন্তানটিই ছিল ২০১৭ সালে ব্রিটেনে জন্ম নেওয়া প্রথম সন্তান। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “কিছু কিছু সময় আপনাকে কোনো কিছু হারানোর বিনিময়েই আরো ভালো কিছু পেতে হবে”।

স্থানীয় পত্রিকাগুলো অস্টিনের চাকরি হারানোর খবর প্রকাশ করার পর শহরের সাবেক বোর্ড মেম্বার এবং বেতনভুক্ত পারিবারিক ছুটি বিষয়ক আইনজীবি সারা পার্সেচিনো পরিবারটির সহায়তায় গো ফান্ড মি শিরোনামে প্রচারণা শুরু করেন।

তিনি বলেন, আমি মনে করি আর্থিক ইস্যুতে উদ্বিগ্ন না হয়ে বরং অস্টিন পরিবারের উচিৎ এখন সময়টাকে উপভোগ করা। আর এভাবে কাউকে চাকরিচ্যুত করা উচিৎ বলেও মনে করিনা আমি।

গণসমর্থনের পাশাপাশি তিনি তিনটি চাকরি এবং একটি শিক্ষাণবীশির প্রস্তাব পেয়েছেন, এমনটাই জানান মি. অস্টিন।

সূত্র: দ্য ইনডিপেনডেন্ট

Image Credit: co.uk

মন্তব্য