ক্ষেপণাস্ত্র হামলা হয়েছে ইউক্রেনের আবাসিক ভবনে

|

রাশিয়ার ছোড়া এক ক্ষেপণাস্ত্র ইউক্রেনের উত্তরাঞ্চলীয় শহর চেরনিহিভের একটি আবাসিক ভবনে আঘাত হেনেছে। ইউক্রেনের ন্যাশনাল নিউজ এজেন্সি (ইউক্রিনফর্ম) এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

সোমবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) বিবিসি জানায়, ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে ভবনটির নিচের দ্বিতীয় তলায় আগুন লেগেছে বলে ইউক্রিনফর্মের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। এদিকে রুশ বাহিনীর বিরুদ্ধে সফল ড্রোন হামলা চালানোর দাবি করেছে ইউক্রেনের সামরিক বাহিনী। সোমবার মার্কিন সংবাদসংস্থা সিএনএনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

গতকাল রোববার ইউক্রেনের সশস্ত্র বাহিনী একটি ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করেছে, যেখানে তুরস্কে নির্মিত ড্রোন ব্যবহার করে রাশিয়ার বিইউকে সার্ফেস-টু-এয়ার মিসাইল সিস্টেম (স্থল থেকে নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র বহনকারী সাঁজোয়া যান) ধ্বংস করতে দেখা গেছে।

ইউক্রেনের সশস্ত্র বাহিনীর কমান্ডার-ইন-চিফ ভ্যালেরি ঝালুঝনি জানান, রাজধানী কিয়েভ থেকে প্রায় ১০০ কিলোমিটার (৬২ মাইল) দূরে অবস্থিত ম্যালিন শহরে এ হামলা চালানো হয়।

ইউক্রেন সরকার গত বছর থেকে তুরস্কের কাছ থেকে বের‍্যাকটার টিবি২ মডেলের ড্রোন আনে।

এদিকে ইউক্রেনে চলমান সামরিক অভিযানের মধ্যেই পারমাণবিক অস্ত্রের দায়িত্বে থাকা বাহিনীকে সর্বোচ্চ প্রস্তুতি রাখার নির্দেশ দিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিন। এর মধ্যেই ইউক্রেনকে অস্ত্র সরবরাহের ঘোষণা দিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন। একই সঙ্গে রুশ বিমানের জন্য নিজেদের আকাশসীমা বন্ধ ঘোষণা করেছে পশ্চিমা দেশগুলো। এ অবস্থায় সংঘাত বন্ধে রাশিয়ার সঙ্গে শর্তহীন আলোচনায় রাজি হয়েছে ইউক্রেন। স্থানীয় সময় আজ সকালে বেলারুশ সীমান্তে এ বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে।




Leave a reply