রাশিয়ার আয়ের পথ বন্ধ হলো ফেসবুকের পরে গুগল এবং ইউটিউব থেকেও

|

ফেসবুকের পরে এবার গুগল এবং ইউটিউব থেকেও আয়ের পথ বন্ধ হলো রাশিয়ার। আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রকাশিত প্রতিবেদন সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

শনিবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন মিডিয়া আউটলেট আরটিসহ অন্যান্য চ্যানেলে বিজ্ঞাপনভিত্তিক আয়ের সুযোগ বন্ধ করে দিয়েছে গুগল। অ্যালফাবেট ইনকরপোরেশনের প্রতিষ্ঠানটি তাদের ওয়েবসাইট, অ্যাপ ও ইউটিউব ভিডিও থেকে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে আয়ের পথ বন্ধ করেছে। ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসনের পর এর আগে ফেসবুক এমন পদক্ষেপ নিয়েছে।

’অসাধারণ পরিস্থিতির’ উল্লেখ করে গুগলের ইউটিউব ইউনিট বলেছে, বেশ কয়েকটি ইউটিউব চ্যানেলের মনিটাইজ ক্ষমতা আটকে রাখা হয়েছে। এর মধ্যে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সাম্প্রতিক নিষেধাজ্ঞার আওতায় থাকা বেশ কয়েকটি রাশিয়ান চ্যানেল অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। সেই সঙ্গে রাশিয়ান রাষ্ট্রীয় অর্থায়নে পরিচালিত মিডিয়া আউটলেটগুলোকে তাদের নিজস্ব ওয়েবসাইট এবং অ্যাপে গুগলের বিজ্ঞাপন-প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে আয়ের সুযোগ বন্ধ করা হয়।

মূলত বিজ্ঞাপন বসানো বিষয়টি ইউটিইব দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়ে থাকে।
এ ছাড়াও গুগলের মুখপাত্র মাইকেল অ্যাসিম্যান বলেন, রাশিয়ান মিডিয়াগুলো গুগল টুলের বা প্লাইস এডের মাধ্যমে বিজ্ঞাপন কিনতে এবং গুগল সার্চ ও জিমেইলের মতো পরিষেবাগুলোয় বিজ্ঞাপন দিতে পারবে না। আমরা বিষয়টি সক্রিয়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছি এবং প্রয়োজনে আরও পদক্ষেপ নেওয়া হবে।
এর আগে বুধবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) ইউরোপীয় ইউনিয়ন রাশিয়ার একাধিক ব্যক্তিসহ আরটি এর প্রধান সম্পাদক মারগারিটা সিমোনিয়ানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। রুশ প্রোপাগান্ডা ছড়ানোর প্রধান ব্যক্তি হিসেবে তাকে উল্লেখ করেছে ইইউ।

শুক্রবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) ফেসবুকের মূল প্রতিষ্ঠান মেটা প্ল্যাটফর্মস ইনকরপোরেটেড ঘোষণা দিয়েছে, এটি রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় মিডিয়াকে যে কোনো জায়গায় মেটার কোনো প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে বিজ্ঞাপন প্রচারে বাধা দিচ্ছে।




Leave a reply