ইউক্রেনে স্যাটেলাইট ব্রডব্যান্ড পরিষেবা চালু করলেন মাস্ক

|

“আপনারা তো মঙ্গলে উপনিবেশ বানাতে চান। এদিকে রাশিয়া যে ইউক্রেন দখল করে ফেলল!” ইউক্রেনের উপ প্রধানমন্ত্রীর আর্তিতে সাড়া দিয়ে তাদের পাশে দাঁড়ালেন ধনকুবের এলন মাস্ক। তার সংস্থা ‘স্পেসএক্স’-এর স্যাটেলাইট ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট পরিষেবা চালু করে দিলেন যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউক্রেনে।

গত বৃহস্পতিবার ইউক্রেনের উপরে ঝাঁপিয়ে পড়ে রুশ বাহিনী। তারপর থেকেই লাগাতার গোলাগুলি, বোমাবর্ষণে বিপর্যস্ত জনজীবন। সেই সঙ্গে ইউক্রেন-সহ পূর্ব ইউরোপের বহু দেশেই বিচ্ছিন্ন ইন্টারনেট পরিষেবা। এই পরিস্থিতিতে উপ প্রধানমন্ত্রী একটি টুইট করেন। সেখানে এলন মাস্ককে মেনশন করে তিনি লেখেন, “আপনারা তো মঙ্গলে উপনিবেশ বানাতে চান। এদিকে রাশিয়া যে ইউক্রেন দখল করে ফেলল! আপনাদের রকেট মহাকাশে পৌঁছে গিয়েছে। কিন্তু রাশিয়ার রকেট ইউক্রেনের সাধারণ মানুষদের উপরে হামলা করেছে। আমাদের আপনার কাছে আরজি ইউক্রেনে স্টারলিঙ্ক স্টেশন স্থাপন করুন।”

তার আরজিতে সাড়া দিয়েছেন এলন মাস্ক। তিনি টুইট করে জানিয়েছেন, ইউক্রেনের সর্বত্র স্টারলিঙ্ক পরিষেবা শুরু হয়ে গিয়েছে। আসলে ফাইবার অপটিক্যাল কেবল কিংবা সেল টাওয়ার না পারলেও উপগ্রহ মারফত নিরবিচ্ছিন্ন ইন্টারনেট পরিষেবা দিতে সক্ষম মাস্কের সংস্থা। সব মিলিয়ে হাজার দুয়েক উপগ্রহ ইতিমধ্যেই মহাকাশে উৎক্ষেপণ করেছে স্টারলিঙ্ক। যা সারা পৃথিবীর বিভিন্ন কোণে ইন্টারনেট পরিষেবা দিতে সক্ষম। গত শুক্রবারও নতুন করে ৫০টি উপগ্রহ পাঠিয়েছে তারা।

কিন্তু একটা সংশয় রয়েছে। মাস্কের সংস্থার পাঠানো উপগ্রহগুলির কয়েকটি কিন্তু মহাকাশে পৌঁছনোর পর কিছু সময় ঠিকঠাক পরিষেবা দিলেও পরবর্তী সময়ে বিগড়ে গিয়েছে। ফলে শেষ পর্যন্ত ইউক্রেনে নিরবিচ্ছিন্ন ইন্টারনেট পরিষেবা দিতে মাস্কের সংস্থা কতটা সক্ষম হবে সেটাই এখন দেখার। সূত্র: রয়টার্স।




Leave a reply