যা বলছে রাশিয়া-ইউক্রেন আলোচনার টেবিলে , প্রধান দুটি দাবি নিয়ে

|

চলমান উত্তেজনা নিরসনে রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছে ইউক্রেন প্রেসিডেন্ট। সোমবার দুই দেশের প্রতিনিধিরা বেলারুশের সীমান্তে আলোচনা করতে পৌছান।

ইউক্রেনের স্থানীয় সময় দুপুর ১টায় এ আলোচনা শুরু হয়। রাশিয়ার প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনা করতে বেলারুশ সীমান্তে গেছেন ইউক্রেনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা। তবে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভ্লদমির জেলেনস্কি এ আলোচনায় অংশ নিতে যাননি।

গণমাধ্যম বিবিসি তাদের এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে মাত্র দুটি প্রধান দাবি নিয়ে রাশিয়ার প্রতিনিধিদের সঙ্গে দেখা করতে গেছেন ইউক্রেনের প্রতিনিধিরা।সেই দাবিগুলোর প্রথমটি হলো অনতিবিলম্বে যুদ্ধবিরতির চুক্তি করা। দ্বিতীয়টি দাবিটি হলো ইউক্রেন থেকে রাশিয়ার সব সৈন্যকে প্রত্যাহার করে নেওয়া।

গণমাধ্যম রয়টার্সকে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের এক উপদেষ্টা আলোচনা শুরু করার বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানিয়েছেন, প্রাথমিকভাবে যুদ্ধবিরতি ও সৈন্য প্রত্যাহারের বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করবে তাদের প্রতিনিধি দল।

এদিকে রাশিয়ার সঙ্গে আলোচনা করলেও এ আলোচনা নিয়ে খুব বেশি আশাবাদী নন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভ্লদিমির জেলেনস্কি।

রবিবার ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট সরাসরি বলেছিলেন, আলোচনার ফলাফল খুব বেশি ভালো হবে না। তবে তিনি জানিয়েছিলেন যদি ছোট কোনো বিষয়ে সাফল্য আসে সেই আশায় আলোচনা করতে রাজি হয়েছেন তারা। তাছাড়া তিনি জানিয়েছেন, ইউক্রেন যুদ্ধ থামাতে চায় না এ কথা যেন কেউ না বলতে পারে। সবাই যাতে জানতে পারে ইউক্রেন ও যুদ্ধ করতে চাই না। সেজন্যও আলোচনায় বসতে রাজি হয়েছে তার দেশ।




Leave a reply