প্রতিদিন ১ কাপ কলা চা পান করে বিভিন্ন রোগমুক্ত থাকুন, সাথে রেসিপিটা ও দেখে নিন

|

কলা চা পান করার দুর্দান্ত সুবিধা রয়েছে। পাতলা হওয়া সহ কি কি রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া যায় সে সম্পর্কে জানুন এবং প্রস্তুত পদ্ধতি ও শিখুন।

সাধারণত বিশ্বাস করা হয় যে, কলা পুষ্টিকর উপাদানগুলিতে সমৃদ্ধ, যা আপনার স্বাস্থ্যের জন্য খুব উপকারী। তবে আপনি কি কখনও এ থেকে তৈরি চা পান করেছেন? হ্যাঁ, আমরা অবাক হয়েছি যে কলা থেকে কীভাবে চা তৈরি করা যায়। আপনি অবশ্যই কলা স্মুদি বা ঝাঁকুনি পান করেছেন। তবে আসুন আমরা আপনাকে বলি যে কলা চা পান করা আপনাকে চর্বিমুক্ত করে তুলবে। এর সাথে সাথে স্বাস্থ্য সম্পর্কিত অনেকগুলি সুবিধা থাকবে। কলা চা বানানোর সুবিধা এবং উপকারিতা শিখুন।

কীভাবে কলা চা তৈরি করবেন

কলা চা দুটি উপায়ে তৈরি করা যেতে পারে, একটি এর খোসা দিয়ে এবং আরেকটি পাকা কলা দিয়ে।

খোসা ছাড়াই কলা চা
প্রথমে একটি প্যানে ২-৩ কাপ জল রেখে একটি কলা খোসা ছাড়িয়ে টুকরো টুকরো করে নিন। এর পরে ১৫-২০ মিনিটের জন্য এই জলটি সিদ্ধ করুন।
তারপরে এটি ফিল্টার করে মধু মেশান। আপনার চা প্রস্তুত।

খোসা কলা চা
আগের মতো এই চা বানিয়ে নিন। শুধু কলার খোসা ছাড়াবেন না। এই চা বেশি উপকারী।

কলা চা পান করার উপকারিতা

কলা পটাশিয়াম সমৃদ্ধ। এর চা খাওয়ার সাথে সাথে আপনার রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে। এর সাথে হার্ট সম্পর্কিত রোগের ঝুঁকি কম থাকে।
খুব কম ঘুম পেলে কলা চা উপকারী বলে প্রমাণিত হতে পারে। কারণ কলাতে ডোপামিন, ট্রাইপটোফান এবং সেরোটোনিনের মতো উপাদান রয়েছে। যা ঘুম বাড়াতে সহায়তা করে। তাই প্রতিদিন এক কাপ কলা চা পান করুন। কলা ভিটামিন এ এবং সি এর পাশাপাশি অ্যাসকরবিড অ্যাসিড সমৃদ্ধ। যা শরীরে শ্বেত কোষগুলি দ্রুত বাড়ায়। যা আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা জোরদার করে। প্রতিদিন এক কাপ কলা চা পান করা আপনাকে স্ট্রেস থেকে দূরে রাখবে।
প্রতিদিন কলা চা পান করা আপনার ওজনও দ্রুত হ্রাস করবে। কলা চায়ে ডায়েটরি ফাইবার, ম্যাগনেসিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ, ভিটামিন বি 6, বি 12 এবং পটাসিয়াম সমৃদ্ধ।
কলাতে পটাসিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়াম থাকে। এছাড়াও এটিতে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এবং ভিটামিন রয়েছে বলে জানা যায়। কলা চা পান করে আপনার হজম ব্যবস্থাও ঠিকঠাক কাজ করবে।








Leave a reply