পুতিনের নির্দেশ পরমাণু অস্ত্র প্রস্তুত রাখার, জবাবে যা বলল যুক্তরাষ্ট্র

|

ইউক্রেনের সঙ্গে চলমান যুদ্ধে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা বাহিনীকে পরমাণু অস্ত্র প্রস্তুত রাখার নির্দেশ দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

এদিকে, পুতিনের এই নির্দেশ ‘সম্পূর্ণ অগ্রহণযোগ্য’ বলে মন্তব্য করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

জাতিসংঘে মার্কিন দূত লিন্ডা টমাস-গ্রিনফিল্ড সিবিএস নিউজকে বলেন, এর অর্থ হচ্ছে, পুতিন এমনভাবে রুশ-ইউক্রেন যুদ্ধের উত্তেজনা বৃদ্ধি করছেন যা ‘সম্পূর্ণ অগ্রহণযোগ্য’।প্রসঙ্গত রাশিয়ার কৌশলগত ক্ষেপণাস্ত্র বাহিনীর জন্য এটাই সর্বোচ্চ স্তরের সতর্কাবস্থা।

এর আগে রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু এবং রাশিয়ান সশস্ত্র বাহিনীর চিফ অব জেনারেল স্টাফ ভ্যালেরি গেরাসিমভের সঙ্গে টেলিভিশনে প্রচারিত এক বৈঠকে পুতিন বলেন, নেতৃস্থানীয় ন্যাটো দেশগুলোর শীর্ষ কর্মকর্তারা আমাদের দেশ সম্পর্কে আক্রমণাত্মক মন্তব্য করেছেন, তাই আমি প্রতিরক্ষা মন্ত্রী এবং চিফ অব জেনারেল স্টাফকে রাশিয়ান আর্মি ডিটারেন্স ফোর্সকে যুদ্ধ সতর্কতায় রাখার নির্দেশ দিচ্ছি।

এ সময় প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু, ‌‌‌’ইয়েস স্যার’ বলে পুতিনের কথার সম্মতি দেন। রাশিয়ার ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা বেআইনি বলেও মন্তব্য করেন পুতিন। রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আরআইএ নভোস্তি রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের উদ্ধৃতি দিয়ে জানায়, কৌশলগত বাহিনী এমন ভাবে সাজানো হয়েছে যে ‘রাশিয়া ও তার মিত্রদের বিরুদ্ধে আগ্রাসন রোধ করার পাশাপাশি আক্রমণকারীকে পরাস্ত করতে পারে।

আরও পড়ুন : যা বলছে রাশিয়া-ইউক্রেন আলোচনার টেবিলে , প্রধান দুটি দাবি নিয়ে

ওই যুদ্ধে পরমাণু অস্ত্র ব্যবহারও করার পরিকল্পনা করা হয়েছে বলে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের উদ্ধৃতি দিয়ে আরআইএ নভোস্তি জানিয়েছে। এদিকে, ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরিক অভিযানের চতুর্থদিন চলছে রোববার। ইউক্রেনের নানা শহরে হামলা চালাচ্ছে রুশ বাহিনী। ইউক্রেনীয় বাহিনীও প্রতিরোধ গড়ে তুলছে।




Leave a reply