রাশিয়ার বিরুদ্ধে আইসিসি যুদ্ধাপরাধের তদন্তে নামছে

|

ইউক্রেনে চলমান রুশ সামরিক অভিযানের এক সপ্তাহের মধ্যে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের (আইসিসি) প্রসিকিউটর অফিস জানিয়েছে, রাশিয়ার বিরুদ্ধে তদন্তের জন্য তারা আদালতের কাছে অনুমতি চাইবে।

সোমবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের প্রসিকিউটর করিম খান এক বিবৃতিতে বলেছেন, পরবর্তী পদক্ষেপ হলো তদন্ত শুরু করার জন্য আদালতের প্রি–ট্র্যায়াল চেম্বার থেকে অনুমোদন চাওয়া। আর অনুমোদন পেলেই প্রক্রিয়াটি নিয়ে এগিয়ে যাওয়া যাবে।

করিম খান আরও বলেন, আমি সন্তুষ্ট যে সঙ্গত কারণে রাশিয়াকে যুদ্ধাপরাধ ও মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

আইসিসি ২০০২ সালে নেদারল্যান্ডের হেগে প্রতিষ্ঠিত হয়। সংস্থাটি গণহত্যা, যুদ্ধাপরাধ ও মানবতাবিরোধী অপরাধের বিরুদ্ধে কাজ করে।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেনে হামলা চালানোর নির্দেশ দেন। এরপর ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় রুশ বাহিনী। ধ্বংস করে বিভিন্ন বিমানঘাঁটি ও গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা। হামলা থেকে বাঁচতে ইউক্রেন থেকে পালাচ্ছে লাখো মানুষ।

এদিকে, ইউক্রেনে হামলা চালানোয় রাশিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছেন পশ্চিমা দেশগুলো। রাশিয়ান বিমান নিজেদের আকাশপথ নিষিদ্ধ করে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। পাল্টা ব্যবস্থা পদক্ষেপ হিসেবে যুক্তরাজ্য, জার্মানি, স্পেন, ইতালি, কানাডাসহ ৩৬টি দেশের এয়ারলাইনসের ফ্লাইট নিষিদ্ধ করে রাশিয়া।




Leave a reply