তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ হবে পারমাণবিক অস্ত্রের : রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী

|

ইউক্রেনে রাশিয়ার অভিযান শুরুর পর বিশ্বেজুড়ে উত্তেজনা বিরাজ করছে। রাশিয়ার এমন আগ্রাসনের বিরুদ্ধে ইউরোপজুড়ে চলছে প্রতিবাদ বিক্ষোভ। পশ্চিমা বিভিন্ন দেশ, বিশেষ করে ন্যাটোভুক্ত দেশগুলো রাশিয়ার ওপর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপের পাশাপাশি নানা চাপ তৈরি করার চেষ্টার করছে। তারপরেও ইউক্রেনে সামরিক অভিযান অব্যাহত রেখেছেন পুতিন। এমন অবস্থায় তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরু হলে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার নিয়ে সতর্ক করেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ।

ল্যাভরভ বলেন, তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ লাগলে এতে পারমাণবিক অস্ত্রের ব্যবহার হবে এবং সেটি হবে ধ্বংসাত্মক। কিয়েভ যদি পারমাণবিক অস্ত্র অর্জন করে, তাহলে প্রকৃত বিপদের মুখোমুখি হবে।

রুশ বার্তা সংস্থা আরআইএ লাভরভকে উদ্ধৃত করে বলছে, ইউক্রেনের হাতে যদি পারমাণবিক অস্ত্র আসে তাহলে তা রাশিয়ার জন্য ‘সত্যিকারের হুমকি’ তৈরি করবে।

রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী এর আগেও আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন যে পশ্চিমা শক্তির সমর্থন নিয়ে ইউক্রেন পরমাণু অস্ত্র হাত করার চেষ্টা করবে।
এর আগে মঙ্গলবারও (১ মার্চ) রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছিলেন, ইউক্রেন পারমাণবিক অস্ত্র অর্জনের চেষ্টা করছে। এটি একটি ‘সত্যিকারের বিপদ’, যার জন্য রাশিয়ার প্রতিক্রিয়া দেখানোর প্রয়োজন রয়েছে।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন দেশটির পারমাণবিক বাহিনীকে প্রস্তুত রাখার নির্দেশ দেওয়ার পর পারমাণবিক অস্ত্র নিয়ে বিশ্বে উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়ে।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) পুতিনের সামরিক অভিযান ঘোষণার কয়েক মিনিট পরেই ইউক্রেনে বোমা ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা শুরু করে রুশ সেনারা। এরপর থেকে ইউক্রেন ও রাশিয়ার মধ্যে যুদ্ধ চলছে। যুদ্ধে এখন পর্যন্ত ইউক্রেনের ৩৭৩ জন নিহত এবং রাশিয়ার ৫ হাজার ৮৪০ সেনাকে হত্যার দাবি ইউক্রেনের। সূত্র : রয়টার্স, বিবিসি, ডেইলি মেইল




Leave a reply