রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাব পড়তে পারে ভারতে, চমকে দেওয়ার মতো ভবিষ্যদ্বাণী

|

জ্যোতিষ শাস্ত্রে রাহুকে পাপী গ্রহ হিসেবে বিবেচনা করা হয়। পাশাপাশি, এর অবস্থানের পরিবর্তনের সাথে সাথে বেশ বড় পরিবর্তন সংগঠিত হয় বলেও মনে করা হয়। এছাড়াও, জ্যোতিষ শাস্ত্র অনুযায়ী, চলতি বছরের ১৭ মার্চ থেকেই রাহু মেষ রাশিতে প্রবেশ করতে চলেছে।

এদিকে, মনে করা হচ্ছে যে, ১৮ মাস পরে রাহুর রাশির এই পরিবর্তন সমগ্র বিশ্বের জন্যও বড় পরিবর্তন আনতে পারে। স্পষ্টতই, ভারতেও এর প্রভাব প্রত্যক্ষভাবে লক্ষ্য করা যাবে। ২০২২ সালের মার্চ মাসে হওয়া রাহুর এই অবস্থার পরিবর্তন দেশের রাজনীতি, অর্থনীতি এমনকি সাধারণ জীবনেও প্রভাব ফেলবে বলে অনুমান করা হচ্ছে।

জ্যোতিষীদের মতে, রাহু এবং কেতু গ্রহ সর্বদা বিপরীত দিকে চলে। পাশাপাশি, তারা ১৮ মাস অন্তর রাশি পরিবর্তন করে। সেই অনুযায়ী, আগামী ১৭ মার্চ রাহু বৃষ রাশি থেকে বিদায় নেবে এবং মেষ রাশিতে প্রবেশ করবে। স্বাভাবিকভাবেই, সেখানে এটি পরবর্তী দেড় বছর থাকবে। এদিকে, রাহুর মেষ রাশিতে প্রবেশের সময় রাশিফল ​​বিশ্লেষণ করলে দেখা যায় যে, মকর রাশিতে শনি, মঙ্গল এবং শুক্র এই ৩ টি গ্রহ অবস্থান করছে। যা সমগ্র বিশ্বে মহা অশান্তির সম্ভাবনা তৈরি করতে পারে এবং এর প্রভাব ভারতেও দেখা যাবে।

পাশাপাশি, মেষ রাশিতে রাহুর আগমন ঘটলে তা জ্যোতিষ শাস্ত্র অনুযায়ী, খাদ্য ও পানীয়ের সঙ্কট নিয়ে আসে। এদিকে, বর্তমান বছরে যুদ্ধের আবহে রাহু মেষ রাশিতে প্রবেশের সাথে সাথে চলমান রুশ-ইউক্রেন যুদ্ধ ভারতের অর্থনীতিতে খারাপ প্রভাব ফেলবে বলে অনুমান করা হচ্ছে। যার ফলে, পেট্রোল-ডিজেলের দাম বৃদ্ধির সাথে সাথে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম বাড়বে। ফলে, সাধারণ মানুষকে চরম অসুবিধায় পড়তে হতে পারে।

এছাড়াও, যেহেতু ইউক্রেন এবং রাশিয়া বিশ্বের বৃহত্তম গম উৎপাদনকারী দেশ এবং এই দু’টি দেশই যুদ্ধের মধ্যে রয়েছে তাই এই পরিস্থিতি শস্যের দাম বহুগুণ বাড়িয়ে দিতে পারে। এর ফলে তৈরি হতে পারে খাদ্য সঙ্কটও। এছাড়াও, রাহুর অবস্থার পরিবর্তন ভারতে অতি বৃষ্টিপাতও ঘটাতে পারে যা ফসলের চরম ক্ষতি করতে সক্ষম।

এদিকে, এপ্রিল মাসে মেষ থেকে একাদশ ঘরে কুম্ভ রাশিতে শনি-মঙ্গল এবং জুনে মেষ রাশিতে রাহু-মঙ্গলের সংমিশ্রণ শেয়ারবাজারে অনেক অস্থিরতা আনতে পারে। এই সময়ে বিনিয়োগকারীদের অত্যন্ত সাবধানে বিনিয়োগ করা উচিত।

এছাড়াও, রাহুর ফলে ভারতের রাজনীতিতেও তোলপাড় হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। পাশাপাশি, এপ্রিল থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে বড় রাজনৈতিক উত্থানও ঘটতে পারে। এছাড়াও, বড় নেতা ও কর্মকর্তাদের সঙ্গে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটার পাশাপাশি, বন্যা এবং ভূমিক্ষয়ের মত প্রাকৃতিক দুর্যোগেরও সম্ভাবনা রয়েছে।




Leave a reply