বজ্রপাতের সময় যা করবেন না

|

বজ্রপাতের শব্দে চমকে ওঠা, ভয় পাওয়া স্বাভাবিক বিষয়ে। কিন্তু যদি জানা থাকে কোন সতর্কতা অবলম্বন জরুরি তাহলে ভয় কাটিয়ে ওঠা যায় সহজেই। গত এক সপ্তাহে বজ্রপাতে কমপক্ষে ২০ জন মারা গেছে। ক্রমান্বয়ে এ সংখ্যা বাড়তে থাকায় উদ্বেগও বাড়ছে। প্রতিদিনই চারপাশ অন্ধকার করে মেঘ আর এরপরেই বজ্রসহ বৃষ্টি। আগেও কী এমন ছিল? এতই বজ্রপাত হতো রোজ? ঝড়-বৃষ্টিতে ঘরে থাকার বিকল্প নেই বলছেন বিশেষজ্ঞরা। এ পরিস্থিতিতে সরকার ২০১৬ সালে বজ্রপাতকে দুর্যোগ হিসেবে ঘোষণা করে। বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বজ্রপাতের ঘটনা ঘটে ভেনিজুয়েলা ও ব্রাজিলে। সেখানকার তুলনায় বাংলাদেশে মৃত্যুর সংখ্যা বেশি। এর কারণ হিসেবে বিশেষজ্ঞরা অসচেতনতাকেই বেশি দায়ী করছেন। তারা বলছেন, কোন পরিস্থিতিতে ঘরে থাকতে হবে, সেটা সাধারণ মানুষ জানে না। জানলেও অনেকে মেনে চলে না।

দেখে নিন ছবিতে ঃ-

দেওয়াল
imgmate.comsource: imgmate.com

বজ্রপাতের সময় কোনো অবস্থাতেই কংক্রিটের ওপর শোবেন না বা দেয়ালের সঙ্গে হেলান দিয়ে থাকবেন না।

উচু স্থান
imgmate.comsource: imgmate.com

উঁচু স্থান অবশ্যই এড়াতে হবে বা নদী, পুকুর, খাল–বিল ইত্যাদির আশপাশে থাকা যাবে না।

বড় গাছ
imgmate.comsource: imgmate.com

কোনো অবস্থাতেই ভূমিতে শোবেন না বা বিচ্ছিন্ন কোনো বড় গাছের নিচে দাঁড়াবেন না।

ইস্পাত বা লোহা জাতীয় জিনিস
imgmate.comsource: imgmate.com

ইস্পাত লোহা জাতীয় জিনিস হাতে নেবেন না।








Leave a reply