করোনা ভাইরাস যে ভাবে মানুষের জীবনকে প্রভাবিত করেছে

|

পৃথিবীতে এসেছে এক প্রাণ ঘাতী কোভিড-১৯ ভাইরাস যাহা আমাদের সকল স্তরের মানুষের জীবনে নিয়ে আসে দূবীসহ এক অশান্তি যাহা ধনী গরিব সহ সকল মানুষ বিপদ এর সম্মুখীন হয়েছে এবং সবাই কম বেশি পড়েছে আর্থিক সংকটে এবং প্রত্যেক শিক্ষার্থী একটি টানা পোড়েন এর মধ্যে দিয়ে জীবন যাপন করছে। অনেকের হয়তো পড়াশোনা শেষ হওয়ার জন্য মাত্র একটি কোর্স বাকি রয়েছে সেই মুহূর্তে এসেছে এই কোভিড-১৯ ভাইরাসটি।

অনলাইন ক্লাস
imgmate.comsource: imgmate.com

অনলাইন ক্লাস

তাহলে একবার ভাবুনতো তারা কতটা সমস্যার ভেতরে আছে। ভাইরাসটি যখন এসেছিল তখন প্রত্যেক মানুষের কাছে মানে ধনী গরিব সবার কাছে কম বেশি পরিমাণ গচ্ছিত অর্থ ছিল এবং লকডাউন এর সময় মানুষ ওই গচ্ছিত অর্থ গুলো খরচ করে তাদের জীবন অতিবাহিত করেছেন। কিন্তু এখন বর্তমান সময়ে মানুষের কাছে পর্যাপ্ত অর্থ নেই।
কারণ লকডাউন এর জন্য তারা ও পর্যাপ্ত পরিমান কাজ কর্মের সুযোগ পাচ্ছে না। বেঁচে থাকার তাগিদে জীবিকা নির্বাহের জন্য তাদেরকে বাড়ি থেকে বের হতে হচ্ছে। এই মূহূর্তে বাড়ির বাইরে বের হলে নিজের, পরিবারের ও দেশের সকল মানুষের একটা ঝুঁকি থাকে।

করোনা ভাইরাস
imgmate.comsource: imgmate.com

করোনা ভাইরাস

কিন্তু নিরুপায় হয়ে ‍পরিবারের সকল মানুষের চাহিদা মেটানোর জন্য বাড়ির বাইরে যেতে হচ্ছে। যত দিন যাচ্ছে পৃথিবীর সকল দেশের পরিস্থিতি তত খারাপ হচ্ছে। পরিস্থিতি খারাপ হওয়া স্বতে ও মানুষ এখন স্বাস্থ্য বিধি সঠিক ভাবে মানছেন না কারণ তাদের কাছে এখন আর সেই আগের মতো গচ্ছিত অর্থ নেই। তাই তারা তাদের প্রয়োজন গুলো মেটানোর জন্য স্বাস্থ্য বিধি না মেনেই শুরু করছে তাদের জীবীকা নির্বাহের কাজ গুলো। কোভিড-১৯ ভাইরাস প্রথমে এমন একটি বিষয় হয়ে দাড়িয়ে ছিলো সেটা আপনাকে একটি উদাহরণের মাধ্যমে বোঝাচ্ছি। যেমন মনে করেন আপনি নদীর ধারে দাঁড়িয়ে আছেন তখন আপনি অনেক দূর থেকে লক্ষ করছেন যে, একটি লঞ্চ আসছে সেটা আপনার দেখতে খুব ভালো লাগছে। কিন্তু যখন ওই লঞ্চটি আপনি যেখানে দাঁড়িয়ে আছেন সেই বরাবর চলে এসেছে তখন ও আপনার দৃশ্যটি দেখতে খুব ভালো লাগছে। যখন আপনার সামনে দিয়ে লঞ্চটি চলে গেলো। তখন ওই জলের যে ঢেউটা এসে নদীর পাড়ে ধাক্কা দিচ্ছে। ঠিক তখন নদীর পাড়টি ভেঙে পড়ে যাচ্ছে। আর আপনি নদীতে পড়ে যাওয়ার উপক্রম হয়ে গেছেন। তখন আপনি অনুভব করতে পারছেন যে লঞ্চ আসাটা দেখতে ভালো লাগলে ও যাওটা একদম ই ভালো ছিল না। ঠিক কোভিড-১৯ ভাইরাস এর ক্ষেত্রে এই বিষয়টি হয়েছে। প্রথম যখন শুরু হয় তখন কম বেশি সবার কাছে থাকা গচ্ছিত উপার্জিত অর্থ/টাকা খরচ করে খেয়েছেন। তখন বাড়িতে সময় কাটিয়েছে তখন সবারই খুব ভালো লাগছিলো। কিন্তু প্রথম বারের লকডাউন উঠিয়ে দেওয়ার পরই মানুষ যখন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সহ সব কিছু আবার পুনঃ চালু হলো। কিন্তু এই কোভিড-১৯ ভাইরাস কতো দিন আমাদের পৃথিবীতে থাকবে কেউ ই বলতে পারবে না। কোভিড-১৯ প্রতিনিয়ত রূপ পাল্টাচ্ছে। যেমন এখন ভাইরাসটি নতুন নতুন রূপ নিচ্ছে যেমন এখনকার নতুন রূপ ব্লাক ফাংগাস। ভাইরাসটি যাওয়ার আগেই যদি এই অবস্থা হয় তাহলে যাওয়ার পড় কেমন অবস্থা হবে ভেবে দেখবেন। কোভিড-১৯ ভাইরাস যাওয়ার পড় যে ঢেউটা থেকে যাবে সেই ঢেউটার সম্মুখীন আমাদেরই হতে হবে। তাই এখন থেকেই আমাদের প্রস্তুতি নিতে হবে কী ভাবে আমরা ওই ঢেউটা মোকাবেলা করতে পারব।

শিক্ষার্থী
imgmate.comsource: imgmate.com








Leave a reply