জাঙ্কফুড পিৎজার মধ্যেই লুকিয়ে রয়েছে এই পাঁচটা দারুণ স্বাস্থ্যগুণ! খাদ্যরসিকরা জানতেন ?

|

আপনি যখন পিৎজা খাওয়ার কথা ভাবেন তখনই মাথায় হানা দেয় জাঙ্ক ফুড, আনহেলদি, ফ্যাট এসব শব্দরা। সবাই সসেজ, বার্গার, ফ্রাইয়ের মত পিৎজাকে একই সারিতে ফেলে দেন।

ইতালিয়ান অরিজিন হলেও জাতি-বর্ণ-ধর্ম নির্বিশেষে সকলের প্লেটে জায়গা করে নিয়েছে সে। তার প্রেমে পড়েনি এ বিশ্বে এমন কোনও জাতি বাকি নেই। তার এই স্বাদের লোভে বিশ্বের সমস্ত দেশ বিদ্বেষ ভুলে একে আপন করে নিয়েছে। এমনই গুণ পিৎজার। তবে যাঁরা মনে করেন পিৎজা নেহাতই এক জাঙ্কফুড ও আনহেলদি, তাদের জন্য রইল নতুন তথ্য। পিৎজা জাঙ্কফুড হলেও, আনহেলদি নয় মোটেই। পিৎজার মধ্যে রয়েছে পাঁচটি দারুণ স্বাস্থ্যগুণ।

বিশ্বাস হচ্ছে না তো ? আপনি যখন পিৎজা খাওয়ার কথা ভাবেন তখনই মাথায় হানা দেয় জাঙ্ক ফুড, আনহেলদি, ফ্যাট এসব শব্দরা। সবাই সসেজ, বার্গার, ফ্রাইয়ের মত পিৎজাকে একই সারিতে ফেলে দেন। কিন্তু জানেন কি সঠিক ভাবে পিৎজা খেলে, তার স্বাস্থ্যগুণও প্রচুর ? ঠিকই পড়েছেন। জেনে নিন কীভাবে পিৎজা আপনার স্বাস্থ্যকে ঠিক রাখে।

পিৎজা খাওয়ার পাঁচটা গুণ

টমেটো সসে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টি রয়েছে
পিৎজার টমেটো সসে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি রয়েছে। এই পুষ্টি আপনার শরীরে জীবাণুর বিরুদ্ধে লড়াই করতে এবং মৌসুমী সর্দি বা কাশির মতো অসুস্থতা থেকে বাঁচাতে প্রয়োজন। যদি সসে অরেগানো যোগ করা হয়, তাহলে আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা আরও বাড়বে। ওরেগনোর প্রধান উপাদান, কারভাক্রোল, আপনার লিভারকে সুস্থ রাখতে এবং আপনার রক্তে শর্করাকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করতে পারে।

স্বাস্থ্যকর টপিংস চয়ন করুন:
এটি নির্ভর করে আপনি পিৎজা রেসিপিতে যে উপাদানগুলি ব্যবহার করেন তা স্বাস্থ্যকর কিনা। সুতরাং, আপনি যখন এটি বাড়িতে তৈরি করছেন, নিশ্চিত করুন যে আপনি পিজ্জার জন্য সেরা উপাদানগুলি নির্বাচন করেছেন। মূল বিষয় হল স্বাস্থ্যকর শাকসবজি, চর্বিহীন মাংস, ফল, একটি ক্রিমি সস এবং প্রোটিন অন্তর্ভুক্ত করা। আপনি যদি পারেন পাতলা ক্রাস্ট ব্যবহার করার কথা বিবেচনা করুন, এটা আপনার শরীরে অতিরিক্ত ক্যালোরি যোগ করবে না।

হোল গ্রেইন পিৎজা বেছে নিন:
আপনি যদি একটি হোল গ্রেইন পিৎজা খান, তাহলে আপনি আপনার প্রতিদিনের অন্তত তিনটি শস্যের চাহিদা পূরণ করবেন। এর মানে হল আপনি দিনের জন্য আরও বেশি ফাইবার পাবেন কারণ পুরো গমের ক্রাস্টে নিয়মিত ক্রাস্টের চেয়ে অন্তত দ্বিগুণ ফাইবার থাকে।

এক পাতে একাধিক উপাদান:
আপনার যদি সারা দিনে টানা কাজের শিডিউল থাকে এবং আপনার নিজের জন্য রান্না করার সময় না থাকে, তাহলে আপনি যেকোন পিৎজা পার্লার থেকে পিৎজা অর্ডার করতে একবার কল করুন। শুধু আপনার পিৎজাতে স্বাস্থ্যকর টপিংস অন্তর্ভুক্ত করার চেষ্টা করুন কারণ এটি আপনার শরীরকে দিনের জন্য পর্যাপ্ত ফাইবার এবং প্রোটিন সরবরাহ করবে।

খাদ্যতালিকায় কম চর্বিযুক্ত পনির পিৎজা:
আপনার খাদ্যতালিকায় আরও ক্যালসিয়াম পেতে পনির একটি দুর্দান্ত উপায়। পনির ক্যালসিয়ামের একটি ভাল উত্স, তবে এটি কেবল পিৎজাতে নয়, টমেটো সসেও ক্যালসিয়াম রয়েছে। পনির পিৎজার এক টুকরোতে প্রায় ২১৯ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম থাকে যা আপনার হাড়কে মজবুত রাখতে এবং পেশীগুলির সঠিক ক্রিয়াকলাপে সহায়তা করে। আপনার পিৎজাতে কম চর্বিযুক্ত পনির অন্তর্ভুক্ত করার চেষ্টা করুন কারণ এটি কম ক্যালোরি এবং চর্বি নিয়ে যাবে।




Leave a reply