এখন সকল বয়সের মানুষ সহ চাকরীজীবীরা কেন ঝুঁকছেন ফ্রিল্যান্সিং এর দিকে?

|

কম বেশি সবারই ফ্রিল্যান্সিং করার ইচ্ছা আছে। কারণ ফ্রিল্যান্সিং একধরণের মুক্ত পেশা যা যেকোন জায়গায় বসে করা যায়। বাসায় থেকে ও কাজ করা যায়।

ফ্রিলান্সিং
imgmate.comsource: imgmate.com

বেশির ভাগ মানুষ মনে করে ফ্রিল্যান্সিং করা খুবই সহজ। আবার অনেকে ভাবেন যে ফ্রিল্যান্সিং করলে অনেক টাকা আয় করা যায়। হঁ্যা এটা ঠিক যে ফ্রিল্যান্সিং করে অনেক টাকা আয় করা যায়। কিন্তু তার জন্য দরকার ধৈর্য আর ইচ্ছা শক্তির। অনেক ব্যক্তি আছেন যারা মোটে ও পরিশ্রম করতে চান না। তারা আবার ফ্রিল্যান্সিং করতে চান। কিন্তু তারা জানেন না যে ফ্রিল্যান্সিং করতে গেলে কী পরিমান পরিশ্রম করতে হয়। শুধু ফ্রিল্যান্সিং করতে গেলে যে পরিশ্রম করতে হয় তা নয়। সব ধরণের কাজের ভিতর পরিশ্রম আছে তবে কম আর বেশি। অন্য কাজের থেকে ফ্রিল্যান্সিং এ একটু পরিশ্রম বেশি। ফ্রিল্যান্সিং এর কাজে অন্য কাজের থেকে পরিশ্রম বেশি কেন বললাম জানেন? কারণ ফ্রিল্যান্সিং এ মেধা দিয়ে কাজ করতে হয়। পৃথিবীতে যত ধরণের কাজ আছে তার ভিতর শারীরিক পরিশ্রমের তুলনায় মানসিক পরিশ্রম বেশি। ফ্রিল্যান্সিং বলতে কোন নির্দিষ্ট কাজকে বোঝায় না। ফ্রিল্যান্সিং বিভিন্ন ধরণের হয়ে থাকে। যেমন ফেসবুক মার্কেটিং করে ফ্রিলান্সিংকরা যায়, তারপর ওয়েব ডেভেলপার হয়ে ও ফ্রিলান্সিং করা যায়, তারপর আছে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন এটা দিয়ে ও ফ্রিলান্সিং করা যায়, তারপর গ্রাফিক্স ডিজাইনার হয়ে ও ফ্রিল্যান্সিং করা যায়।

ফ্রিলান্সিং
imgmate.comsource: imgmate.com

এছাড়া আরও কাজ আছে যা দিয়ে ফ্রিলান্সিং করা যায়। ফ্রিলান্সিং করতে হলে যে কোন কাজ ভালো করে শিখতে হবে। তা না হলে আপনি তো আর ফ্রিলান্সিং করতে পারবেন না। এই কাজ শেখার জন্য আপনাকে করতে হবে কঠোর পরিশ্রম। পরিশ্রম ছাড়া কোন কাজ করা সম্ভব নয়। ফ্রিলান্সিং হলো এমন একটি বিষয় আপনাকে একজন কাজ দিবে আর আপনি তার সেই কাজ করে দিলে আপনাকে একটা পারিশ্রমিক দিবে। এই লেনদেনটাই হলো ফ্রিল্যান্সিং। ফ্রিলান্সিং করতে হলে আপনাকে পরিশ্রম করতে হবে। এই পরিশ্রম বেশি করতে হবে কাজ শেখার সময়। আপনাকে যে কাজ দিবে সে তো আর আপনাকে ফ্রি টাকা দিবে না। সে আপনাকে টাকা দিবে আর তার বিনিময়ে আপনাকে ও কিছু দিতে হবে। সেটি হলো কাজ, এই কাজ যদি তার পছন্দ না হয় তাহলে সে তো আর আপনাকে কাজ দিবে না।

ফ্রিলান্সিং
imgmate.comsource: imgmate.com

তার জন্য আপনাকে ভালো কাজ শেখার কাজে সময় ব্যয় করতে হবে। আবার অনেকে আছেন যারা অল্প কিছু কাজ শিখে ফ্রিলান্সিং করতে যান তারা বেশি দিন মার্কেট প্লেসে টিকে থাকতে পারেন না। আপনাকে মার্কেটিং করতে হলে অবশ্যয় ভাল কাজ জানতে হবে। আর সব না জেনেই অনেকে ফ্রিলান্সিং করতে চান। ফ্রিলান্সিং করে আয় করা যদি অতটা সহজ হতো তাহলে সবাই ফ্রিলান্সিং করত। যারা টাকার জন্য ফ্রিলান্সিং করতে চান তারা ফ্রিলান্সিং করতে পারেন না তারা অল্প কাজ করে ফ্রিলান্সিং কাজ করার জন্য বা কাজ পাওয়ার জন্য ছোটেন। আমরা সবাই যে কাজই করিনা কেন সেটা করি টাকার জন্য। কিন্তু আপনি যদি ভাল কাজ জানেন বা ভালো কাজ পারেন, তাহলে টাকার পিছনে আপনার ছোটা লাগবে না। টাকা আপনার পিছনে ছুটবে। কম বেশি সবার ফ্রিলান্সিং করার ইচ্ছা জাগে টাকা আয় করার জন্য। নতুন যারা ফ্রিলান্সিং এর নাম শুনেন বা যারা ফ্রিলান্সিং করে আয় করা যায় এই কথা প্রথম শোনেন তারা মনে করেন ১ মাস ২মাস কষ্ট করে আমি শিখতে পারব আর ফ্রিলান্সিং করে অনেক টাকা আয় করতে পারব। ফ্রিলান্সিং করার জন্য সবার প্রথমে চাই ধৈর্য, ইচ্চাশক্তি আর নিজের উপর বিশ্বাস। এই গুলো যারা করতে পারবে তারাই সফল ফ্রিলান্সার হতে পারবে। বর্তমানে চাকুরীজীবীরা ও ফ্রিলান্সিং করার দিকে ঝুঁকছেন কারণ তারা এই মহামারীতে বাইরে না বের হয়ে ও ঘরে বসে নিরাপদে কাজ করতে পারবেন। এই কাজ করতে গেলে কোন টাকা বা অন্য কিছ বিনিয়োগ করা লাগে না। ফ্রিলান্সিং এ কোন ঝুঁকি না থাকায় বেশির ভাগ মানুষ ফ্রিলান্সিং এর দিকে ঝুঁকছেন।

freelenching
imgmate.comsource: imgmate.com








Leave a reply