ডেনমার্কের এক নারীর ৫০ কোটি টাকা খেয়ে দিলেন কুমিল্লার সাইফ! (ভিডিও সহ)

|

ডেনমার্কের তরুণী

কুমিল্লার সাইফ সম্পর্কে ডেনমার্কের সেই তরুণী বলেন, প্রায় দশ বছর বিবাহিত জীবন পার করার পরেও সে আমার চাকরীর বেতন থেকে জমানো পঞ্চাশ কোটি টাকা আত্মসাৎ করে পালিয়ে গেছে!

সে বলেছে, সে ডেনমার্ক থেকে বাংলাদেশে আসবে। এটি বলেও সে আমার কাছ থেকে ৫০ হাজার ইউরো নিয়েছে!

সাইফ সম্পর্কে ডেনামার্কের এই নারী আরো বলেন, প্রায় তিন মাস আগেই বাংলাদেশে চলে যায় সাইফ। কিন্তু বাংলাদেশে যাওয়ার পরপরই ডেনমার্কে বসবাসরত সেই নারীর সংগে যোগাযোগ পুরোপুরি বন্ধ করে দিয়েছে কুমিল্লার সাইফ।

এদিকে ডেনমার্কের সেই নারীও বসে নেই, সাইফের পিছু পিছু তিনিও চলে এসেছেন তার অধিকার পাওয়ার জন্য। উল্যেখ্য যে নারীটির বয়স মাত্র ২৯ বছর। সংগে করে তিন বছর বয়সি এক কন্যা সন্তানকেও নিয়ে তিনি এসেছেন কুমিল্লায়।

বর্তমানে ডেনমার্ক থেকে আগত সেই নারীটি বাংলাদেশের কুমিল্লার আশারকোটা নামক একটি গ্রামে অবস্থারত আছে।

নিজের অধিকার আদায়ের জন্য তিনি স্থানিয় প্রশাসন এবং মেম্বারদের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে জানা গিয়েছে।

ডেনমার্কের সেই নাদিয়া নামক তরুণীটি দাবি করেন যে সেখানকার মেম্বারের ছেলে সাইফ তার সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছে। তবে স্থানীয়রা তাকে প্রতারক বলে দাবী করেন।

ডেনমার্কের তরুণীর ৫০ কোটি টাকা মেরে দিলেন কুমিল্লার সাইফ

ডেনমার্কের সেই তরুণী দাবী করেন মফিজের সংগে তার প্রায় ১০ বছর আগেই বিবাহ হয়েছিল। এমনকি এই দীর্ঘ সংসার জিবনে তাদের একটি কন্যা সন্তানও রয়েছে।

বিগত নভেম্বর মাসের ২৫ তারিখ সেই নারীকে বাড়ি থেকে স্থানীয়রা সুকৌশলে নিজেদের বাসা থেকে দূরে স্থানীয় একটি হোটেলে নিয়ে আসে।

সেখান থেকে ডেনমার্কের সেই তরুণী জানান, তাকে সাইফ ফোন দিয়ে বলে সে নাকি ডেনমার্কে চলে গেছে আর নাদিয়াকেও সেখানে চলে আসতে বলছে। এখন নাদিয়ার বক্তব্য, তাহলে আমি আর বাংলাদেশে থেকে কি করব। আমাকেও এখন ডেনমার্কে ফিরে যেতে হবে।

বাংলাদেশে তো আর থাকার মত আমার কেউ নেই। কার জন্যই বা আমি এখন বাংলাদেশে থাকব।

এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে সাইফ এবং তার পরিবারের সাথে যোগাযোগ করলে তারা কথা বলতে অস্বীকৃতি জানান।

কুমিল্লার প্রশাসনের সাথে যোগাযোগ করা হলে, তারা জানান নাদিয়া ডেনমার্কে ফিরে গেছে বলেই আমরা জানি। এর বেশিকিছু বর্তমানে আমাদের জানা নেই।








Leave a reply