ওমিক্রনের বিরুদ্ধে আরও শক্তিশালী টিকা আনতে চলেছে মডার্না, দাবি সংস্থার

|

দেশ জুড়ে করোনার প্রকোপ ফের বাড়ছে। এক ধাক্কায় ৪০ শতাংশ বাড়ল সারা দেশে করোনায় দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা। একই সঙ্গে আক্রান্তের নিরিখে দু’হাজারের গণ্ডি পেরোল মহারাষ্ট্র এবং কেরল। উদ্বেগ বাড়িয়ে দৈনিক আক্রান্তের নিরিখে কেরলকে ছাপিয়ে আগেই শীর্ষে পৌঁছেছে মহারাষ্ট্র। মহারাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় মোট ২ হাজার ৭০১ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

কেবল ভারতেই নয়, আমেরিকাতেও করোনার বাড়বাড়ন্ত চিন্তা বাড়াচ্ছে চিকিৎসকদের। এরই মধ্যে কোভিডের টিকা প্রস্তুতকারী বিভিন্ন সংস্থা তাদের টিকার মান আরও উন্নত করতে নানাবিধ পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে।

সম্প্রতি করোনার টিকা প্রস্তুতকারী সংস্থা মডার্না দাবি করেছে তাদের তৈরি প্রতিষেধকের মিশ্র ডো়জ ওমিক্রন সংক্রমণের বিরুদ্ধে আট গুণ বেশি কার্যকর।

আপাতত বাজারে যে সব টিকা পাওয়া যাচ্ছে, সেই সবগুলি করোনাভাইরাসের একদম প্রাথমিক রূপের উপর ভিত্তি করে প্রস্তুত করা হয়েছে। অতি-সংক্রামক ওমিক্রনের উপস্থিতির পরেও সেই সব টিকাগুলি শক্তিশালী সুরক্ষা প্রদান করছে। বিশেষ করে যাঁরা ‘বুষ্টার ডো়জ’ নিয়েছেন, তাঁদের শরীরে আরও ভাল কাজ করছে এই টিকা।

কিন্তু এই ভাইরাসের প্রতিনিয়ত রূপ বদল চিন্তায় ফেলেছে গবেষকদের। এই পরিস্থিতি নতুন কোনও টিকা আবিষ্কারের আদেশ দেওয়া হবে কি না— তাই নিয়ে ভাবনাচিন্তা চালাচ্ছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। আমেরিকার ‘ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন’ জুন মাসের শেষের দিকে এই বিষয় বিভিন্ন টিকা প্রস্তুতকারী সংস্থার সঙ্গে বৈঠকে বসতে চলেছে।

মডার্নার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, তাঁদের টিকার মিশ্র ডোজ দেওয়ার এক মাস পরে টিকা গ্রহীতাদের শরীরে ওমিক্রনের অ্যান্টিবডির মাত্রা অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে। শুধু তা-ই নয়, এই মিশ্র ডোজ কোভিডের বাকি রূপগুলির বিরুদ্ধেও সারারণ টিকার তুলনায় অনেক বেশি কার্যকর। ৪৩৭ জনের শরীরে এই ট্রায়াল করা হয়েছে। আরও বেশি সংখ্যক মানুষ নিয়ে এই পরীক্ষা চালানোর জন্য প্রস্তুত সংস্থা।




Leave a reply