ঈদের আগেই বাজারে আসছে পরিবেশবান্ধব ‘বাঘ’

|

আগামী রোজার ঈদের আগেই বাংলাদেশের বাজারে আসছে পরিবেশবান্ধব বৈদ্যুতিক থ্রি-হুইলার (তিন চাকার বাহন) ও মোটর বাইক ‘বাঘ’। বৃহস্পতিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) ঢাকায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে খবরটি জানিয়েছেন বাঘ ইকো মোটরসের সভাপতি কাজী জাসিমুল ইসলাম বাপ্পি। তিনি বলেন, ‘বর্তমান সময়ের পরিপ্রেক্ষিতে মডেল ও সার্বিক দিক দিয়ে তিন চাকা ও দুই চাকার বাহন দুটি আধুনিক, আরামদায়ক ও পরিবেশবান্ধব এবং উপযোগী।’

পরিবেশবান্ধব বৈদ্যুতিক থ্রি-হুইলার প্রসঙ্গে উদ্যোক্তা উল্লেখ করেন, এর প্রধান বিশেষত্ব হলো আইওটি ডিভাইসের সহায়তায় যেকোনও সময় যেকোনও স্থান থেকে এটি ট্র্যাক করা যায়। গাড়িটির বিমা করা রয়েছে, ফলে দুর্ঘটনায় আর্থিক সহায়তার ব্যবস্থাও আছে। আগামী ঈদের আগেই বাঘ ব্র্যান্ডের যানবাহন দেশের সড়কে চলাচল করবে বলে আশা তার।

তিন চাকা ও দুই চাকার বাহন দুটির পরিবেশগত ও কারিগরি দিক বর্ণনা করেন কাজী জাসিমুল ইসলাম বাপ্পি, ‘এগুলো লিথিয়াম ব্যাটারি ও সোলারের সমন্বয়ে চলবে। অ্যাসিড ব্যাটারির তুলনায় লিথিয়াম ব্যাটারি ৩০ শতাংশ ভালো কাজ করে। এটি অ্যাসিড ব্যাটারির ওজনের এক-তৃতীয়াংশ। অ্যাসিড ব্যাটারির চেয়ে কমপক্ষে তিন ঘণ্টা দ্রুত চার্জ হয়। এই ব্যাটারিতে সীসা অ্যাসিড না থাকায় দূষণ ঘটবে না। সহজে চার্জিং ব্যবস্থা রাখতে দেশের বিভিন্ন স্থানে রয়েল চার্জিং স্টেশন স্থাপন করা হয়েছে।’

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, বাংলাদেশে এসিড ব্যাটারি উৎপাদনের কারণে পরিবেশ ব্যাপকভাবে দূষিত হচ্ছে। এ তথ্য জানিয়ে বাঘ ইকো মোটরসের সভাপতি বলেন, ‘ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে সুন্দর পরিবেশ দেওয়ার লক্ষ্যে রয়েল বেঙ্গল ব্যাটারি লিমিটেড এসিড ব্যাটারির পরিবর্তে পরিবেশবান্ধব লিথিয়াম ব্যাটারি তৈরির উদ্যোগ নেয়। তাইওয়ানের প্রযুক্তি ব্যবহার করে সোলার ও লিথিয়াম ব্যাটারি একত্রে সংযুক্ত করে দুটি পরিবেশবান্ধব গাড়ি উদ্ভাবন করা হয়েছে। বাংলাদেশের জন্য বিশেষভাবে ডিজাইন করা পরিবেশবান্ধব গাড়ি হলো বাঘ।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও ছিলেন বাঘ ইকো মোটরসের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মো. মনজুর মাহমুদ মো. এনামুল হক, ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাহিদ নওরিন জাহান।




Leave a reply