অনলাইনে IELTS কোর্স করে তিনি যেভাবে 8 (eight) পেলেন !

|

বাংলাদেশের লাখো মানুষ IELTS-এ একটা ভালো স্কোরের জন্য মরিয়া হয়ে থাকেন ! কারণ IELTS-এ 6, 6.5 অথবা 7 হলেই বিদেশে পড়াশোনা অথবা ইমিগ্রেশনের জন্য ভিসা হয়ে যায়। কিন্তু চেষ্টা এবং সঠিক গাইডের অভাবে অনেকেই স্কোর করতে পারছেন না। আজ আমরা কথা বলবো ফারদিন চৌধুরীর সাথে যিনি অনলাইনে ক্লাস করেই অনেক বেশি কৃতিত্বপূর্ণ স্কোর IELTS-এ 8 (eight) পেয়েছেন !

দেশ থেকে এমবিএ করার করার পর কানাডাতে উচ্চশিক্ষার জন্য ফারদিনের IELTS-এ 7.5 দরকার ছিল। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত তার প্রস্তুতি কেমন ছিল এসব নিয়ে তার সাথে সরাসরি কথা বলছি:

আপনার এই সফলতার জন্য কোন বিষয়টাকে আপনি বেশি গুরুত্বপূর্ণ মনে করেন ?

“আপনাকে ধন্যবাদ ! IELTS-এ ভালো স্কোর পেতে ইংলিশের দক্ষতা, টেকনিক এবং প্র্যাকটিস এই তিনটাই সমানভাবে দরকার।”

আপনি কিভাবে এই তিনটা বিষয় সমন্বয় করলেন?

“আমার এক পরিচিত ডাক্তার ইংলিশ টুডের স্টুডেন্ট ছিলেন। তিনি সেখানে অনলাইনে প্রিপারেশন নিয়ে 8.5 পেয়েছিলেন যেটা আমার থেকেও বেশি ! যদিও সেখানে খরচ বেশি তারপরও আমি তার থেকে শুনে সেখানে এডমিশন নেই। শুধু ইংলিশের দক্ষতা থাকলেই 7+ স্কোর করা যাবে না। আমি এই বিষয়টা ইংলিশ টুডের টেকনিক এবং স্ট্রাটেজি শিখে বুঝতে পেরেছিলাম। শুধু তাই নয়, তাদের টেকনিকগুলো আমি ঠিকমতো বুঝে বুঝে প্রয়োগ করতে পারছি কি-না এসব নিয়ে অনলাইনে নিয়মিত গাইড করা হয়। তাদের টেকনিক এবং গাইড অনুসরণ করে নিয়মিত প্র্যাকটিস করতাম ! আমি মনে করি, এভাবে ২/৩ মাসের মধ্যেই ভালো স্কোর করা সম্ভব ! আর তাদের প্রচুর সল্ভ ক্লাসের সুযোগ ছিল !”

যারা IELTS দেবেন তাদের জন্য আপনার উপদেশ কি?

“আপনার ইংলিশের ভিত্তি শক্তিশালী করুন। আর আমি লক্ষাধিক মেম্বারের তাদের একটা জনপ্রিয় ফেইসবুক গ্রুপের লিংক দিচ্ছি। এই গ্রুপে যোগ দিন: https://www.facebook.com/groups/EnglishToday.Co
এই গ্রুপে নিয়মিত অনলাইন ক্লাসের পোস্ট দেয়া হয় ! সেগুলো থেকেই তাদের কোয়ালিটি সম্পর্কে প্রথমে ধারণা পেয়েছিলাম ! মোটামুটি ইংলিশের দক্ষতা থাকলে যে কেউ তাদের থেকে সার্ভিস নিলে ভালো একটা স্কোর পাবেই। এই বিষয়টা আমি আমার অভিজ্ঞতা থেকে এবং আমার পরিচিতদের অভিজ্ঞতা থেকে নিঃসন্দেহে বলতে পারি ! তারা ট্রায়াল ক্লাসেরও সুযোগ দেয়!”

আপনি যে গ্রুপের রেফারেন্স দিলেন সেটা কি দেশের প্রথম অনলাইন ইংলিশ ক্লাসরুম ইংলিশ টুডের গ্রুপ?

“হ্যাঁ। আমি যে ব্যাচে ক্লাস করতাম সেটা কবির স্যার নিজেই নিতেন ! তিনিই ইংলিশ টুডের প্রতিষ্ঠাতা ! অনেক বছর আগেই IELTS-এ উনার অনেক ভালো স্কোর ছিল ! তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ থেকে এমবিএ করেছেন !”

এখন করোনার কারণে অনলাইন ক্লাস বেশ জনপ্রিয় ! আপনি কি মনে করেন অনলাইনে ক্লাস না করে আপনি যদি ক্যাম্পাস ক্লাসে প্রিপারেশন নিতেন তাহলেও কি এমন স্কোর হতো ?

“আমি আপনাকে আগেও বলেছি, টেকনিক এবং গাইড অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ! এসব আপনি যার কাছ থেকে শিখছেন সেগুলো কার্যকরী হতে হবে ! IELTS অনেক টেকনিক্যাল একটা টেস্ট ! আমি ইংলিশে মোটামুটি ভালোই ছিলাম। কিন্তু ভালো স্কোর পেতে লিসনিং, রিডিং, রাইটিং এবং স্পিকিং-এ অনেক গুরুত্বপূর্ণ টেকনিক্যাল বিষয় আছে যা আমি আগে জানতাম না। ইংলিশ টুডেতে না গেলে আমার অজানাই থেকে যেত ! যেমন আমার রাইটিং নিয়ে সমস্যা ছিল। তাদের একটা বিশেষ ফরমেট শেখার পর রাইটিং সহজ হয়ে গিয়েছিল।

আর আমাকে যদি সাধারণভাবে অনলাইনের সাথে তুলনা করতে বলেন তাহলে বলবো আমি অনলাইনে ক্লাস করেছি বলেই এমন স্কোর হয়েছে, কারণ আমি প্র্যাকটিসের জন্য অনেক সময় পেতাম। অনলাইনে ক্লাস না করলে এই সময়টা রাস্তায় নষ্ট হতো ! আমি যে ব্যাচে ক্লাস করতাম সেখানে প্রায় ১০ জন ছিলাম ! ক্লাসের বাইরে আমরা যখন ল্যাংগুয়েজ ক্লাব করতাম তখন এই বিষয়টা নিয়ে আমাদের মধ্যে কথা হতো ! দেখতাম, অনলাইনেই সবার স্বাচ্ছন্দ বেশি ! তবে প্রতিষ্ঠানের অনলাইনে ক্লাস নেয়ার অভিজ্ঞতা থাকতে হবে ! ইংলিশ টুডে ২০১৪ সাল থেকে সার্ভিস দিচ্ছে ! অনলাইনে তাদের কোর্স কারিকুলাম অনেক গুছানো এবং সমৃদ্ধ ! আর ক্লাসের অভিজ্ঞতাও অনেক !”

আমাদের সময় দেওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ !

পাঠক, ফারদিন চৌধুরী আপনাকে যে গ্রুপের রেফারেন্স দিলেন আপনিও সেখানে যোগ দিন ! এতক্ষনে আপনি নিশ্চয় ই বুঝতে পেরেছেন যে, শুধু ভাষার দক্ষতাই নয়, IELTS-এ ভালো করতে টেকনিকও গুরুত্বপূর্ণ ! আপনার IELTS প্রিপারেশনের যাত্রা সুন্দর হোক এবং আপনিও যেন আপনার কাঙ্খিত স্কোরে পৌঁছে যেতে পারেন এই আশাবাদ ব্যক্ত করছি ! এখানে যোগ দিন: Click here








Leave a reply