পর পুরুষের সঙ্গে শারীরিক মিলন বিশ্বাসঘাতকতা নয়: দীপিকা পাড়ুকোন

|

দীপিকা পাড়ুকোন (Deepika Padukone)-এর সাম্প্রতিক রিলিজ ‘গেহরাইয়াঁ’ মুক্তির আগে থেকেই বিতর্ক তৈরি করেছে। সমালোচকদের একাংশের মতে, এই ফিল্মটি একটি সফট পর্ণ ছাড়া আর কিছুই নয়। এমনকি দীপিকাকে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল, তিনি সিদ্ধান্ত চতুর্বেদী (Sidhdhant chaturbedi)-র সঙ্গে ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে অভিনয়ের জন্য রণবীর সিং (Ranveer Singh)-এর অনুমতি নিয়েছিলেন কিনা!

‘গেহরাইয়াঁ’ মুক্তির পর দর্শকদের একাংশের এই ফিল্ম ভালো লাগেনি। এই ফিল্মের কাহিনীতে দেখানো হয়েছে, ছয় বছরের বিবাহিত সম্পর্কে দমবন্ধ হয়ে আসছে আলিশা ওরফে দীপিকার। তার একাকীত্ব তাকে টেনে নিয়ে যায় তার বোনের প্রেমিকের সঙ্গে পরকীয়ায়। এরপরেই দীপিকাকে অনেকে জিজ্ঞাসা করেছেন, বিশ্বাসঘাতকতা নিয়ে এখনও কি মানুষ মাথা ঘামান! দীপিকা উত্তর দিয়েছেন, তিনি নিজে বিশ্বাসঘাতকতা সহ্য করতে পারেন না। কিন্তু তিনি অন্য কারও সম্পর্ক নিয়ে মত প্রকাশ করতে চান না। সংযোগের উপর সম্পর্ক তৈরি হয়। সংযোগ চলে গেলে সম্পর্ক হারিয়ে যায় বলে মনে করেন দীপিকা।

 

 
 
 
 
 
View this post on Instagram
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

 

 

A post shared by Deepika Padukone (@deepikapadukone)

 

 
 
 
 
 
View this post on Instagram
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

 

A post shared by Deepika Padukone (@deepikapadukone)

দীপিকার মতে, শারীরিক আকর্ষণ খুব সাময়িক বিষয়। একটি সম্পর্কে সম্মান প্রকৃত বিষয়। মোনোগ্যামি, শারীরিক আকর্ষণ এগুলো এক জিনিস। কিন্তু কেউ যদি মানসিকভাবে বিশ্বাসঘাতকতা করেন, তাহলে তা হতাশ করে দীপিকাকে।


শাহরুখ খান (Shahrukh Khan)-এর সঙ্গে ‘পাঠান’ ফিল্মে অভিনয় করছেন দীপিকা। এছাড়াও পরবর্তী ফিল্ম ‘ফাইটার’-এ হৃত্বিক রোশন (Hritwik Roshan)-এর বিপরীতে অভিনয় করছেন দীপিকা। ‘প্রজেক্ট কে’-তে প্রভাস (Prabhas) ও অমিতাভ বচ্চন (Amitabh Bachchan)-এর সাথে অভিনয় করছেন তিনি। ‘দ্য ইন্টার্ন’ ফিল্মেও দেখা যাবে তাঁকে।




Leave a reply