ছেলে যেন ইউক্রেন থেকে দ্রুত ফিরে আসে, আর্জি ইসলামপুরের ডাক্তারি পড়ুয়ার মায়ের

|

বাড়ির একমাত্র ছেলে ইউক্রেনে আটকে পড়েছে। ছেলে কবে বাড়িতে ফিরবে? আদৌ কি সুস্থ ভাবে দেশে ফিরতে পারবে? উৎকণ্ঠায় দিন কাটছে ইসলামপুরের বাসিন্দা পাভেল দাসের মায়ের। টেলিভিশনের পর্দায় চোখ রেখে বসে রয়েছেন অনুপমা দাস। মাঝেমধ্যে পাভেলের সঙ্গে ফোনে কথাবার্তাও হচ্ছে। তবে তা-ও দুশ্চিন্তা কাটছে না তাঁর। মায়ের আর্জি, ছেলেকে দ্রুত দেশে ফেরানোর বন্দোবস্ত করুক ভারত সরকার।

বছর তিনেক আগে এমবিবিএস পড়তে ইউক্রেনে গিয়েছিলেন উত্তর দিনাজপুর জেলার ইসলামপুর শহরের বাসিন্দা পাভেল। মার্চের গোড়ায় বাড়িতে ফেরার কথা ছিল তাঁর। তবে বৃহস্পতিবার ইউক্রেনের বিরুদ্ধে রাশিয়া অভিযান শুরু করায় পরিস্থিতি পাল্টে গিয়েছে। পাভেল আদৌ বাড়িতে ফিরতে পারবে কি না, তা জানেন না অনুপমা। স্বামীর মৃত্যুর পর একমাত্র ছেলেকে নিয়ে সংসার টানছেন এই আইসিডিএস কর্মী। পাভেলের আটকে পড়ার খবর শুনে রামকৃষ্ণপল্লি এলাকায় তাঁদের বাড়িতে চলে এসেছেন জেঠু রথীন দাস। দুশ্চিন্তা তাঁরও কম নয়। তিনি বলেন, ‘‘ইউক্রেনে এমবিবিএস পড়াশোনা করছে আমার ভাইপো পাভেল দাস। মেডিক্যালের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। প্রতি দিনই অন্তত এক বার করে পাভেলের সঙ্গে কথাবার্তা হয়। তবে ইউক্রেনে যা অবস্থা হয়েছে তাতে ওর জন্য যথেষ্ট উদ্বেগের মধ্যে রয়েছি। আমরা চাই যাতে ভারত সরকার ইউক্রেনের দূতাবাসের মাধ্যমে ওখানে আটকে পড়া সমস্ত নাগরিকদের ফিরিয়ে আনুক।’’




Leave a reply