কিয়েভে সংঘর্ষ, পালাতে অস্বীকৃতি জেলেনস্কির

|

ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের রাস্তায় রাস্তায় সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়েছে। এই পরিস্থিতিতে পালাতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। দেশ ছেড়ে পালানোর জন্য মার্কিন সাহায্যও প্রত্যাখ্যান করেছেন তিনি। শনিবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা এপি।

বার্তাসংস্থা এপি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, স্থানীয় সময় শনিবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) ভোর থেকে রাশিয়ার সামরিক বাহিনী কিয়েভে ব্যাপক হামলা শুরু করেছে। হামলা শুরুর পর থেকে শহরজুড়ে ব্যাপক বিস্ফোরণের খবর পাওয়া যাচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে শত্রপক্ষকে শক্তভাবে রুখে দিতে জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি।

এ ছাড়া ব্যাপক রুশ হামলার মুখে তাকে কিয়েভ থেকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়ার ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্রের প্রস্তাবও প্রত্যাখ্যান করেছেন জেলেনস্কি। যুক্তরাষ্ট্রকে তিনি বলেছেন, ‘এখানে যুদ্ধ চলছে।’

এপি বলছে, ব্যাপক এই সংঘর্ষের কারণে শত শত হতাহতের খবর পাওয়া যাচ্ছে। এছাড়া কামানের গোলার আঘাতে কিয়েভের অনেক আবাসিক ভবন, সেতু ও স্কুল ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ ছাড়া হামলার মাধ্যমে রাশিয়া ইউক্রেনের সরকারকে উৎখাত করতে পারে, এমন ইঙ্গিতও জোরালো ভাবে পাওয়া যাচ্ছে।

বিপদ জেনেও জেলেনস্কির কিয়েভে থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছেন অনেকে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে তাকে নিয়ে চলছে প্রশংসার জোয়ার। এমন সাহসীরাই ‘প্রকৃত নেতা’ বলে উল্লেখ করেছেন কেউ কেউ।




Leave a reply