নিজেকে বাপ্পি লাহিড়ীর সঙ্গে তুলনা করে বিপাকে অভিনেত্রী

|

ভারতীয় উপমহাদেশের কিংবদন্তি সংগীতশিল্পী বাপ্পি লাহিড়ীর সঙ্গে নিজেকে তুলনা করে বিপাকে পড়েছেন বলিউড অভিনেত্রী আদা শর্মা। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় সদ্য প্রয়াত কিংবদন্তির সঙ্গে নিজের তুলনা করে একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন তিনি। কিন্তু বিতর্কের জেরে পোস্টটি মুছে ফেলতে বাধ্য হন এই অভিনেত্রী।

আদা সেই পোস্টে নিজের পরা গয়নার সঙ্গে বাপ্পি লাহিড়ীর সোনার অলঙ্কারের তুলনা করেন। এতেই ক্ষিপ্ত হন নেটজনতা। অভিনেত্রীর পোস্টটিকে অত্যন্ত অশোভন ও কুরুচিকর আখ্যা দেওয়া হয়। এমনকি সেই পোস্টের কমেন্টবক্সে সমালোচনার ঝড় বয়ে যায়।

জানা গেছে, আদার সেই পোস্টটি বেশ পুরনো। বাপ্পি লাহিড়ীর মৃত্যুর অনেক আগেই এই ছবির কোলাজ তৈরি করা হয়েছিলো। ২০২০ সালের ২৮ মার্চ ছবিটি ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেছিলেন এই অভিনেত্রী।

পুরনো পোস্ট হলে কেন আবার নতুন করে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করলেন- এমন প্রশ্নের জবাবে আদা ভারতীয় গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ছবিটি প্রায় এক মাস আগে ২৪ ফেব্রুয়ারির জন্য শিডিউল করে দেওয়া হয়েছিল। পোস্টটি পাবলিশ হয়ে যাওয়ার পর যখন সমালোচনার বন্যা বয়ে যায়, তখনই টের পান তিনি। সঙ্গে সঙ্গেই পোস্টটি মুছে দেন আদা। বাপ্পি লাহিড়ীর মতো কিংবদন্তিকে অসম্মান করার অভিপ্রায়ে এই পোস্ট তিনি করেননি বলেই দাবি করেন তিনি।

গান হোক বা গয়না, বরাবরই চর্চিত বাপ্পি লাহিড়ী। তিনি ‘গোল্ড লাভার’ ছিলেন। তার সংগ্রহে ছিল উল্লেখযোগ্য পরিমাণ সোনা। বরাবরই তার গা-ভরা গয়না দেখে কেউ মুগ্ধ হয়েছেন, কেউ মেতেছেন রসিকতায়। তবে তার ভিন্নধর্মী ফ্যাশন সবার নজর কেড়েছে।

১৯৭০ থেকে ৮০-এর দশকে হিন্দি ছায়াছবির জগতে অন্যতম জনপ্রিয় নাম বাপ্পি লাহিড়ী। হিন্দিতে ‘ডিস্কো ডান্সার’, ‘চলতে চলতে’, ‘শরাবি’, বাংলায় অমর সঙ্গী, আশা ও ভালোবাসা, আমার তুমি, অমর প্রেম প্রভৃতি ছবিতে সুর দিয়েছেন। গেয়েছেন একাধিক গান।

গেলো ১৬ ফেব্রুয়ারি মধ্যরাতে ৬৯ বছর বয়সে সবাইকে কাঁদিয়ে মুম্বাইয়ের একটি হাসপাতালে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন কিংবদন্তি সংগীতশিল্পী বাপ্পি লাহিড়ী। তার মৃত্যুতে সুরের ভুবনে শোকের কালো ছায়া নেমে এসেছে।

প্রসঙ্গত, ২০০৮ সালে ‘১৯২০’ নামের সিনেমার মাধ্যমে বলিউডে পথচলা শুরু করেন আদা শর্মা। সবশেষ ২০১৯ সালে মুক্তি পাওয়া ‘কমান্ডো ৩’ সিনেমায় দেখা গিয়েছিল এই অভিনেত্রীকে। বাপ্পি লাহিড়ীর সঙ্গে কোলাজ করা ছবি পোস্ট করায় ফের আলোচনায় উঠে আসেন তিনি।




Leave a reply