‘শেষ যুদ্ধ’ শুরু হয়ে গেল কিভের রাস্তায়! রুশ ফৌজকে ঠেকাতে অস্ত্র হাতে মানুষও

|

ইউক্রেনের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, এখনও পর্যন্ত রাশিয়ার আগ্রাসনে তিনটি শিশু-সহ ১৯৮ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। আহত হয়েছেন হাজারেরও বেশি। তবে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বক্তব্য থেকে স্পষ্ট নয়, তিনি শুধু সাধারণ মানুষের মৃত্যুর কথা বলছেন, না কি তাতে ইউক্রেনের সেনাও রয়েছে।

কিভের রাস্তায় মুখোমুখি রাশিয়া ও ইউক্রেনের সেনাবাহিনী। শহরের বহুতল লক্ষ্য করে মুহুর্মুহু ক্ষেপণাস্ত্র হামলা। সাদা বরফের চাদর সরিয়ে তার জায়গা নিচ্ছে অট্টালিকার ধ্বংসাবশেষ। শুরু হয়ে গিয়েছে চূড়ান্ত লড়াই।

আচমকা টেলিভিশন বার্তায় রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ‘বিশেষ সামরিক অভিযান’ শুরু করার ঘোষণার প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই হামলা শুরু হয়ে যায়। তার পর কেটে গিয়েছে ৭২ ঘণ্টারও বেশি সময়। এই সময়ের মধ্যে এক বারও থামেনি হামলা। বরং যত সময় গড়িয়েছে, পাল্লা দিয়ে বেড়েছে হামলার তীব্রতা। শনিবার ভারতীয় সময় দুপুর ২টো নাগাদ কিভে ঢুকে পড়তে সক্ষম হয় রাশিয়ার সৈন্যবাহিনীর একটি অংশ। ফলে সেই সময় থেকেই একে বারে রাজধানীর বুকে শুরু চূড়ান্ত লড়াই।




Leave a reply