মাত্র এক গ্লাস নিয়মিত! ঋতু পরিবর্তনের সময় ফ্লু থেকে নানা রোগ দূরে রাখবে সহজেই

|

শীত বিদায় নিয়েছে। তবে এখনও ভোরের দিকে অথবা রাতে ঠান্ডা অনুভূত হচ্ছে। কিন্তু বেলা বাড়তেই গরম বাড়ছে। ঋতু পরিবর্তনের সময়। আর এই সময়ে রোগ সহজেই বাসা বাঁধে শরীরে। ঠান্ডা লাগা, জ্বর, ফ্লু ইত্যাদি লেগেই থাকে ঘরে ঘরে। তাই এই সময়টা বেশি করে সচেতন থাকতে বলেন চিকিৎসকরা। স্বাস্থ্যকর ডায়েট মেনে চললে এই সময়টা রোগমুক্ত থাকা যায়। আর তাই ডায়েটে একটি পানীয় রাখতে বলছেন বিশেষজ্ঞরা।

বিটের রসের সঙ্গে আমলকির জুস মিশিয়ে নিয়মিত খেলে বহু রোগ থেকে নিজেকে দূরে রাখা যায়। দেখে নেওয়া যাক কেন খাবেন এই পানীয়-

১) বিটে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিড্যান্ট ও অ্যান্টি ইনফ্লেমেটরি উপাদান। অন্যদিকে আমলকিতে থাকে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি ও অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট। তাই ডিটক্স পানীয় হিসেবে এটি খুবই কার্যকরী।

২) বিটে থাকে আয়রন ও ভিটামিন সি যা শরীরে স্বাস্থ্যকর লোহিত রক্তকণিকা তৈরি করতে পারে এবং ইনফেকশনের সঙ্গে লড়াই করতে সক্ষম। অন্যদিকে আমলাও শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে কারণ এতেও থাকে ভিটামিন সি।

৩) রক্তে অক্সিজেন চলাচলে সাহায্য করে বিট। আর তাই এনার্জিও বেশি থাকে বিট খেলে। আমলাতেও এমন উপাদান থাকে যা শরীরে শক্তি জোগায় ও সতেজ পাখে।

৪) আমলা বিভিন্ন ভাবে ঘরোয়া টোটকা হিসেবে ব্যবহৃত হয়। আমলায় থাকা উপাদান জ্বর ফ্লু এর সঙ্গে লড়াই করতে সক্ষম। এর মধ্যে যথেষ্ট পরিমাণে ভিটামিন সি থাকে যা শ্বেতকণিকা রক্তে তৈরি করতে সক্ষম। অন্যদিকে বিট জ্বর ও ফ্লু এর উপসর্গ কমাতে সাহায্য করে।

৫) পেটের অসুখের ক্ষেত্রেও এই পানীয় খুব কার্যকরী। মেটাবলিজম ভালো রাখতে সক্ষম আমলকি। অন্যদিকে পাকস্থলী ক্রিয়া ভালো করতে সাহায্য করে বিট।




Leave a reply