পাকিস্তান মডেলিংয়ের ভবিষ্যৎ যারা

|

কিছু নতুন মুখ শুধু ইন্টারনেটেই ঝড় তুলেছে তা নয় বরং সারা দুনিয়ার ফ্যাশন সচেতনদের নজর-ও কাড়ছে। পাকিস্তানি উঠতি এই তারকাদের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও বাড়ছে ফ্যান ফলোয়ার। যাদের ধরা হচ্ছে বিনোদন ইন্ডাস্ট্রির ভবিষ্যৎ হিসেবে। চলুন পরিচিত হই তেমনই কয়েকজন পাকিস্তানি তারকার সঙ্গে।
ফাতেমা হাসান

একজন ‘ইনফ্লুয়েন্সার’ হওয়া থেকে শুরু করে তিনি ‘সর্ব সময়ের মডেল’ হিসেবেও সফল। সারা দুনিয়াতে, বেশ কয়েকটি ব্র্যান্ডের প্রচারণায় দেখা যায় তার মুখ।

সোনা রফিক

তিনি পড়াশোনা করেছেন ফাইন্যান্সে। কিন্তু ফ্যাশনের জগত তাকে টেনে নিয়েছিল কারণ তিনি খুব দ্রুত দেশের সীমানা পেরিয়ে মডেল হয়ে উঠছিলেন দশ দিগন্তে।

খুশাল খান

গত বছর উদীয়মান মডেল হিসেবে তিনি আবির্ভূত হন। এরপরে তার প্রতিভা দেখিয়েছেন অভিনয় থেকে শুরু করে মডেলিংয়ের প্রায় সকল শাখায়। এই শিল্পী ধীরে ধীরে মিডিয়া জগতে আধিপত্য বিস্তার করে চলেছেন আন্তর্জাতিকভাবে।

ইমান সুলেমান

গত বছর লাক্স স্টাইল অ্যাওয়ার্ডে সেরা উদীয়মান মডেলের খেতাব পান তিনি। এরপরে নিজ আলোয় বেড়ে উঠছেন মডেলিং জগতে। সুন্দর এবং নান্দনিক মুখশ্রী দিয়ে তিনি জয় করে চলেছেন একের পরে এক সীমানা।

সচল আফজাল
র‌্যাম্পে হাঁটার সময় একটি ক্যারিয়ার এক্সপোতে একজন ফটোগ্রাফার তাকে দেখলেন। ছবি তুললেন। সেই ছবি ছাপা হলে সবাই দেখল তাকে। এর পরে সচল আফজাল তার দেশের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য ব্র্যাণ্ডগুলোর মডেল হলেন। এবং দিন দিন পরিণত হচ্ছেন সেরা’তে।

মাহা তাহিরানী

লাক্স স্টাইল অ্যাওয়ার্ডে, তিনি পেলেন ‘মডেল ফর দ্য ইয়ার’ সম্মান। শুধু তাই নয়, আপন প্রতিভায় ঝলসে ওঠেন তিনি। মডেলিং জগতের গুরুত্বপূর্ণ স্থান দখল করতে যাচ্ছেন ভবিষ্যতে।

মামিয়া শাহজাফর

দশজন-দশদিকের নেতিবাচক সমালোচনাকে উপেক্ষা করে, দিগবিজয়ীর মতো এগিয়ে যাচ্ছেন তিনি। বাস্তবতা যখন তার পক্ষে, মডেলিংয়ের পথ ধরে এগিয়ে যাচ্ছেন তিনি।




Leave a reply